লিলির খেলোয়াড়কে টানেলে মারতে গিয়েছিলেন নেইমার (Video)

লিলির কাছে ১-০ ব্যবধানে হেরে গেছে পিএসজি, যা তাদের লিগ ওয়ান জেতার স্বপ্নে জোর ধাক্কা দিয়েছে। অন্যদিকে, লিভারপুল ইপিএলে ৩-০ হারিয়েছে আর্সেনালকে। দুই মাস পরে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর হয়ে খেলতে নেমেছিলেন ব্রাজিল সুপারস্টার নেইমার। প্রথম ম্যাচেই প্রতিপক্ষ ফুটবলারকে লাথি মেরে তাকে লাল কার্ড দেখতে হয়েছে। ম্যাচের শেষ দিকে এই ঘটনা ঘটে।
ম্যাচের ২০তম মিনিটে লিলকে এগিয়ে দিয়েছিলেন জোনাথন ডেভিড। বাকি ৭০ মিনিটে সমতা ফেরানোর গোল খুঁজে পায়নি পিএসজি। প্রথমার্ধেই প্রতিপক্ষের বেঞ্জামিন আন্দ্রের মুখে আঘাত করে হলুদ কার্ড দেখেন নেইমার। খেলা শেষের কিছুক্ষণ আগে থিয়াগো জালোকে বল ছাড়াই লাথি মারেন। রেফারি দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখিয়ে বের করে দেন নেইমারকে। চলতি লিগে মার্সেইয়ের বিরুদ্ধে লাল কার্ড দেখে নির্বাসিত হয়েছিলেন ব্রাজিলীয় তারকা।

লাল কার্ড দেখার পর মাথাটা যেন আরও খারাপ হয়ে গিয়েছিল নেইমারের। রাগে গজগজ করতে করতে তিনি মাঠ ছাড়েন। অন্যদিকে নেইমারের পাশাপাশি লিলের ডিফেন্ডার জালোকেও লাল কার্ড দেখিয়েছিলেন রেফারি। নেইমার টানেলের মুখ পর্যন্ত গিয়েই জালোকে উদ্দেশ করে কী সব বলতে থাকেন। জালোও তার সঙ্গে তর্কযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েন। উপস্থিত কর্মকর্তারা দুজনকে শান্ত করার অনেক চেষ্টা করেন।
এভাবে ঝগড়া করতে করতে টানেলে ঢোকেন দুজন। একপর্যায়ে জালো কী একটা বলায় উত্তেজিত হয়ে পড়েন নেইমার। জালোকে মারার জন্য এগিয়ে যান তিনি। জালোও তেড়েফুঁড়ে এগিয়ে আসার চেষ্টা করেন। নেইমারকে আটকাতে চেষ্টা করা এক কর্মকর্তাকে ধাক্কা দেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। এরপর দৌড়ে জালোর দিকে যাওয়ার চেষ্টা করেন। সেই সময় ধাক্কাধাক্কির মধ্যে এক কর্মকর্তা টানেলে পড়ে যান।
শেষ পর্যন্ত নেইমার-জালো মুখোমুখি হতে পারেননি। দুই দলের কর্মকর্তারা দুজনকে যাঁর যাঁর ড্রেসিংরুমে নিয়ে যেতে পেরেছেন। বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলারের এমন কাণ্ড নিশ্চয়ই অনেকেরই পছন্দ হয়নি!