‘মুফতি হয়েও কেন অভিনেত্রীকে বিয়ে করলেন’ প্রশ্নে যা বললেন আনাস

অক্টোবর মাসেই সানা ঘোষণা করেছিলেন, অভিনয় ও গ্ল্যামার জগত ছেড়ে তিনি এবার ধর্মের কাজে পুরোপুরি নিজেকে উৎসর্গ করবেন। আর তার দিন কয়েকের মধ্যেই বিয়ে করলেন অভিনেত্রী। বিয়ের ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে লিখলেন, “আল্লাহর জন্যই পরস্পরকে ভালোবেসেছি। আল্লাহর জন্যই পরস্পরকে বিয়ে করেছি। প্রার্থনা করি যাতে এই দুনিয়ায় আল্লাহ আমাদের একসঙ্গে রাখেন। জান্নাতেও যেন আমাদের একসঙ্গে রাখেন এই কামনা করি।”
অক্টোবরে সানা পোস্ট করেছিলেন, “এই পৃথিবীতে জন্ম নিয়ে মৃত্যু পরবর্তী জীবনের উন্নতির জন্য কাজ করা দরকার। সৃষ্টিকর্তার নির্দেশ মতো যদি একজন ভৃত্য তার জীবনযাপন করেন তাহলেই ভালো। সবসময়ে অর্থ ও খ্যাতির পিছনে ছুটলেই সেটা হয় না। বরং পাপের রাস্তা ছেড়ে সৃষ্টিকর্তার দেখানো পথেই হাঁটা উচিত।”
এরপর থেকেই আলোচনায় রয়েছেন এ নবদম্পতি। আনাসকে জীবনসঙ্গী করায় নেটিজেনরা সানার প্রশংসা করলেও অনেকেই তাদের সম্পর্ক নিয়ে নানা প্রশ্ন তুলেছেন। তবে সেসব তোয়াক্কা করেননি সানা।

অন্যদিকে ‘মুফতি হয়েও কেন বিনোদন জগতের মানুষকে বিয়ে করছেন’?- এমন প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে আনাসকে। অনেকেই সানার বিনোদন দুনিয়া ছাড়া নিয়ে তাকে দায়ীও করছেন। তবে সানা খানের বিনোদন দুনিয়া ছাড়ার পেছনে তার কোনো হাত নেই বলে দাবি করেছেন মুফতি আনাস।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে আনাস বলেন, আমি কখনোই সানাকে নির্দিষ্টভাবে জীবনযাপনের জন্য বাধ্য করিনি। গত ছয় মাস আগে ইনস্টাগ্রামে সানা জানিয়েছিলেন তিনি হিজাব পরবেন। লোকজন ভেবেছিল, এটা হয় তো মহামারীর কারণে সাময়িক ভয় থেকে সৃষ্ট আবেগ। ‘কিন্তু সানা সব সময়ই কাজের জায়গা থেকে নিজেকে আলাদা রাখতে চেয়েছিলেন। আমি ভেবেছিলাম, ওকে কিছুটা সময় দেয়া উচিত। তবে ও হঠাৎই বিনোদন দুনিয়া ছাড়ার ঘোষণা করে দিল। এতে আমিও কিছুটা হতবাক হয়েছিলাম।’

আনাস আরও বলেন, আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেছিলাম যে, আমি সানাকে বিয়ে করতে চাই এবং তিনি আমার প্রার্থনা শুনেছিলেন। আমার মনে হয়, আমি যদি অন্য কাউকে বিয়ে করতাম হয়তো এত খুশি হতাম না। সানা নিজে সম্পূর্ণ নয়। তবে ও আধ্যাত্মিক, ক্ষমাশীল এবং স্বচ্ছ হৃদয়ের মানুষ। আমি সর্বদা এমন একটি মেয়েকে চেয়েছিলাম, যে আমার পরিপূরক এবং আমাকে সম্পূর্ণ করবে।

তিনি আরও জানান, লোকজন এখনও আমাকে জিজ্ঞাসা করছে যে, আমি কীভাবে একজন অভিনেত্রীকে বিয়ে করতে পারি? যারা এমন প্রশ্ন করছেন তারা ভীষণই সংকীর্ণ মনের বলে জানান তিনি। আনাস বলেন, এটি আমার জীবন এবং এ বিষয়ে কারো মন্তব্য করা উচিত নয়। লোকেরা নির্দ্বিধায় ভাবতে পারে যে, আমাদের মধ্যে কোনো মিল নেই, তবে আমরা জানি আমরা কতটা সামঞ্জস্যপূর্ণ। বলিউড অভিনেত্রী সানা খান ইসলামের টানে তার ১৫ বছরের সুদীর্ঘ ক্যারিয়ারের ইতি টানেন গত অক্টোবরে। এর দেড় মাস পর ২০ নভেম্বর মুফতি আনাসকে বিয়ে করেন তিনি। বর্তমানে এ দম্পতি হানিমুনের জন্য কাশ্মীরে রয়েছেন। সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে