সরকারি মেডিকেল কলেজের কোনটিতে কত আসন দেখে নিন

এ বছর ৩৭টি মেডিকেল কলেজে চার হাজার ৩৫০টি আসনের জন্য লড়বেন শিক্ষার্থীরা। এই আসনগুলোর মধ্যে কোটায় আবেদনকারীরা পাবেন ১২০ টি।

২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস কোর্সের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে অনলাইনে ভর্তি আবেদন শুরু হয়েছে। ১০ মার্চ আবেদনের শেষ সময় থাকলেও আরও ৫ দিন সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। আগামী ১৫ মার্চ রাত ১২টার আগ পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।


কোন মেডিকেলে কতটি আসন জেনে নিন –

  1. ঢাকা মেডিকেল কলেজে ২৩০টি আসন রয়েছে।
  2. চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে আসন ২৩০ টি।
  3. কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজে আসন ৭৫ টি।
  4. কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে আসন ৭০ টি।
  5. কুমিল্লা মেডিকেল কলেজে ১৮০ টি।
  6. যশোর মেডিকেল কলেজে ৭০ টি।
  7. খুলনা মেডিকেল কলেজে ১৮০ টি।
  8. কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজে ৬৫ টি।
  9. এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজে ১৮০টি আসন রয়েছে।
  10. নোয়াখালীর আব্দুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজে আসন ৭০ টি।
  11. বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজে আসন ৫০ টি।
  12. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজে আসন ১৮০ টি।
  13. চাঁদপুর মেডিকেল কলেজে আসন ৫০ টি।
  14. এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজে আসন ২৩০ টি।
  15. মাগুরা মেডিকেল কলেজে ৫০ টি।
  16. মুগদা মেডিকেল কলেজে ৭৫ টি।
  17. ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে ২৩০ টি।
  18. নওগাঁ মেডিকেল কলেজে ৫০ টি।
  19. নেত্রকোনা মেডিকেল কলেজে ৫০ টি।
  20. নীলফামারী মেডিকেল কলেজে ৫০ টি।
  21. পাবনা মেডিকেল কলেজে ৭০ টি।
  22. পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজে ৫১ টি।
  23. রাজশাহী মেডিকেল কলেজে ২৩০টি আসন রয়েছে।
  24. রাঙামাটি মেডিকেল কলেজে ৫১ টি।
  25. রংপুর মেডিকেল কলেজে ২৩০ টি।
  26. সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজে ৬৫ টি।
  27. শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজে ৬৫ টি।
  28. শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজে ২০০ টি।
  29. শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজে ৬৫ টি।
  30. শহীদ তাজ উদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজে ৭২ টি।
  31. শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজে ১৮০ টি।
  32. শেরে বাংলা মেডিকেলে কলেজে ২৩০টি আসন রয়েছে।
  33. শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হবিগঞ্জে ৫১টি আসন।
  34. শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ, জামালপুরে ৬৫ টি।
  35. শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ, টাঙ্গাইলে ৬৫ টি।
  36. শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজে ৬৫টি এবং
  37. স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজে ২৩০টি আসন রয়েছে।

এসব আসনের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় আবেদনকারীরা পাবেন ৮৭টি আসন এবং উপজাতি কোটায় আবেদনকারীরা পাবেন ৩৩টি আসন।