ভেনেজুয়েলাকে হারিয়ে সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনা, আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল, সেমিফাইনালেই মুখোমুখি!

কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনা দলে মেসি-আগুয়েরো-মারিয়া, দলে নেই ইকার্দি

কোপা আমেরিকার কোয়ার্টার ফাইনালে ভেনেজুয়েলাকে ২-০ গোলে হারিয়ে সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনা। আর্জেন্টিনার হয়ে একটি করে গোল করেন মার্টিনেজ ও সেলসো। সেমিতে ব্রাজিলের মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা।
শুক্রবারের ম্যাচে ভেনেজুয়েলার মুখোমুখি হয়েও আর্জেন্টিনা খুব একটা ভালো ফুটবল খেলেছে বলা যাবে না। বরং ভেনেজুয়েলার ছিরিহীন আর দুর্বল ফুটবলের সুবিধা নিয়ে জয় পেয়েছে কোপা আমেরিকার অন্যতম সফল দলটি। প্রথমার্ধে মার্টিনেজ আর দ্বিতীয়ার্ধে লো সেলসোর গোলে শেষপর্যন্ত ২-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা।
এ জয়ে সেমিফাইনালের টিকিট তো নিশ্চিত করল আর্জেন্টিনা। কিন্তু মেসির ট্রফি উঁচু করে ধরার স্বপ্ন! জাতীয় দলের জার্সি গায়ে আন্তর্জাতিক ম্যাচে লিওনেল মেসির শিরোপা জয়ের স্বপ্নটা বাঁচিয়ে রাখল এ জয়। তবে সেমিফাইনালেই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের মুখোমুখি হতে হচ্ছে মেসিদের। বেলো হরিজন্তে স্বাগতিকদের বিদায় করে আর্জেন্টিনা কি পারবে ফাইনালে পৌঁছাতে? আরও নির্দিষ্ট করে বললে, মেসি কি পারবেন দেশের হয়ে তাঁর ট্রফি জয়ের স্বপ্ন পূরণ করতে?
ম্যাচের শুরুতে বেশ এগিয়েই ছিল আর্জেন্টিনা। বল দখল, পাস কিংবা শট নেয়া-সব ক্ষেত্রেই এগিয়ে থাকার ফলটা পেতে দেরি হয়নি আলবিসেলেস্তেদের। ১০ মিনিটের মাথায়ই প্রথম গোল পেয়ে যায় তারা।
দশম মিনিটে দুটি কর্নার পায় আজেন্টিনা। প্রথমটিতে লিওনেল মেসির ক্রস থেকে সার্জিও আগুয়েরো গোল করতে পারেননি। তবে পরের কর্নারে আগুয়েরোর ক্রস বক্সের মধ্যে পেয়ে ডান পায়ের শটে ভেনিজুয়েলার গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন লুতারো মার্টিনেজ (১-০)।
গোল খেয়ে যেন হুঁশ ফেরে ভেনেজুয়েলার। এরপর তারা বেশ চড়াও হয়ে খেলেছে। বল দখল, পাসিংয়ে নিজেদের প্রভাব দেখিয়েছে। তবে আর্জেন্টাইন রক্ষণ ভেদ করে শট নিতে পারেনি সেভাবে। আর্জেন্টিনা বরং বেশ কয়েকটি সুযোগ তৈরি করেছিল। তবে প্রথমার্ধে আর গোলের দেখা পায়নি লিওনেল মেসির দল। ১-০ গোলে এগিয়ে থেকেই যায় বিরতিতে। গোল শোধের জন্য দ্বিতীয়ার্ধেও চেষ্টা করেছে ভেনেজুয়েলা। তবে ৭৪ মিনিটের মাথায় আরও এক গোল হজম করে বসে তারা। সার্জিও আগুয়েরোর শট প্রথমে ঠেকিয়ে দিয়েছিলেন ভেনেজুয়েলা গোলরক্ষক। কিন্তু তারই ভুলে জালে বল জড়িয়ে দেন জিওভানি লো সেলসো (২-০)। শেষপর্যন্ত ওই ২-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে মেসির দল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *