আগামী মৌসুমেই একসঙ্গে খেলবেন মেসি-নেইমার!

ক্লাব ফুটবলে আগামী মৌসুমে আবারো দেখা যাবে মেসি-নেইমার জুটি। এমনটি জানিয়েছেন নেইমার নিজেই। বার্সায় মেসি-নেইমার-সুয়ারেজ, বিখ্যাত এমএসএন জুটি গড়েছিলেন। চারবছরের সেই জুটি ছিল অপ্রতিরোধ্য। যে কারণে, ২০১৭ সালে ২২২ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে পিএসজিতে আসার পর নেইমার যখন বুঝলেন, তখন থেকে আবারও বার্সায় যাওয়ার জন্য নিয়মিত চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন। কিন্তু এবার ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার ইএসপিএনের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে মেসিকে বলে দিলেন, আগামী মৌসুমেই আবার আমরা একসঙ্গে খেলতে নামবো।

Neymar has revealed that what he wants most is to play with Lionel Messi again.
এদিকে আগামী জানুয়ারিতেই বার্সার সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে মেসির। এরপর তিনি ফ্রি। চাইলে নতুন চুক্তি করে বার্সায় থাকতে পারবেন। আবার চাইলে অন্য কোথাও যেতে পারবেন। বার্সায় মেসি-নেইমার-সুয়ারেজ, বিখ্যাত এমএসএন জুটি গড়েছিলেন। চারবছরের সেই জুটি ছিল অপ্রতিরোধ্য। যে কারণে, ২০১৭ সালে ২২২ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে পিএসজিতে আসার পর নেইমার যখন বুঝলেন, তখন থেকে আবারও বার্সায় যাওয়ার জন্য নিয়মিত চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন। ম্যানইউর বিপক্ষে ৩-১ গোলে জয়ের পর ইএসপিএনকে নেইমার বলেন, ‘আমি সব সময়ই চাই মেসির সঙ্গে পূনরায় খেলার জন্য। আমার বিশ্বাস, অবশ্যই মাঠে তার সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আবার খেলতে সক্ষম হবো।’

নেইমারের কথায় মনে হচ্ছে, আগামী মৌসুমে কি তাহলে মেসি পিএসজিতেই যোগ দেবেন! ব্রাজিলিয়ান এই তারকা পিএসজিতে নিজের জায়গা ছেড়ে দিতে রাজি। নেইমার বলেন, ‘তিনি (মেসি) চাইলে আমার জায়গাতেই খেলতে পারে। তার জন্য আমি জায়গা ছেড়ে দিতে রাজি আছি। এতে আমার কোনো সমস্যা হবে না। সুতরাং, যেভাবেই হোক আমি চাই, আগামী বছর আবার আমরা দু’জন একসঙ্গে খেলতে পারবো। এবং এটা নিশ্চিত। আমরা অবশ্যই আগামী মৌসুমে এটাকে বাস্তবায়ন করে ছাড়বো।’
একজন আর্জেন্টাইন, আরেকজন ব্রাজিলিয়ান। তবে লিওনেল মেসি ও নেইমার জুনিয়রের বন্ধুত্বের পথে বাধা হয়নি ফুটবল মাঠের চিরবৈরিতা। ২০১৩ সালে নেইমার বার্সেলোনায় যোগ দেওয়ার পর থেকেই হরিহর আত্মা দুজন। নেইমার ২০১৭ সালে বার্সেলোনা ছেড়ে ফ্রান্সের রাজধানীতে চলে যাওয়ার পরেও চিড় ধরেনি সেই বন্ধুত্বে।

এর আগে গত বছর জোরেশোরেই শোনা গিয়েছিল, নেইমার আবার বার্সেলোনায় ফিরে যাচ্ছেন। কিন্তু নেইমারকে দলে ফেরাতে পিএসজিকে ভালো কোনো প্রস্তাব দিতে পারেনি কাতালান ক্লাবটি। এরপর এ বছর তো বার্সা ছাড়তে চেয়ে কী তোলপাড়ই না ফেললেন মেসি। অনেক নাটকের পর শেষ পর্যন্ত অবশ্য আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড মত বদলেছেন, থেকে গেছেন বার্সেলোনাতেই।

কিন্তু মৌসুম শেষে আর্জেন্টাইন মহাতারকা কি থাকবেন ন্যু ক্যাম্পে? প্রশ্নটা এখনো বড় হয়ে আছে। মেসির সঙ্গে বার্সার চুক্তিটা এ মৌসুম পর্যন্তই। এরপর মেসি বার্সা ছাড়তে চাইলে কাতালান ক্লাবটি জোর করতে পারবে না। মৌসুমে শেষে মেসিকে পেতে অন্য কোনো দলকে কোনো রকমের টাকা-পয়সাও দিতে হবে না বার্সেলোনাকে। মেসির বার্সা ছেড়ে কোনো ক্লাবে যেতে পারেন—সে প্রশ্নে অবশ্য ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটিকেই এগিয়ে রাখেন বেশিরভাগ ফুটবল বিশেষজ্ঞ। তবে ৩৩ বছর বয়সী মেসির জন্য যে পিএসজির আগ্রহও কম নয়। নেইমারদের কোচ টমাস টুখেলও জানিয়ে রেখেছেন, প্যারিসে তিনি ‘স্বাগত’ জানাবেন মেসিকে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *