এক নজরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোতে খেলবে যে ১৬ দল

শেষ হয়েছে চলতি মৌসুমের উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বের সবগুলো ম্যাচ। তিন মাসব্যাপী গ্রুপ পর্ব শেষে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছে প্রায় সবগুলো জায়ান্ট দল। তবে শেষ রাউন্ডে নাটকীয়ভাবে বাদ পড়েছে ইতালির দুটি ক্লাব ইন্টার মিলান ও নাপোলি। দেখে নেওয়া যাক কারা পেল শেষ ষোলোর টিকেট, কারা গেল উয়েফা ইউরোপা কাপে। আর বাদই পড়ল কারা।

গ্রুপ এ: এ গ্রুপ থেকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলোর টিকিট পেয়েছে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। তাদের সঙ্গী অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। ইউরোপা লিগে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে নিয়েছে ক্লাব ব্রুজেস। বাদ পড়েছে মোনাকো।

গ্রুপ বি: চলতি আসরে সবার আগে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছিল বার্সেলোনা। বি গ্রুপ থেকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই শেষ ষোলোতে নাম লেখায় দলটি। শেষ ম্যাচে এই বার্সাকে রুখে দিয়েই তাদের সঙ্গী হয়েছে টটেনহ্যাম। আর ঘরের মাঠে পিএসভি আইন্দহোভেনের সঙ্গে জিততে না পারায় ইউরোপা কাপ খেলতে হবে ইন্টার মিলানকে। বাদ পড়েছে পিএসভি।

গ্রুপ সি: সি গ্রুপ থেকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই পরের রাউন্ডের টিকিট পেয়েছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেই (পিএসজি)। অথচ শেষ দুটি ম্যাচের আগে বাদ পড়ার শঙ্কায় ছিল দলটি। শেষ ম্যাচে নাপোলিকে হারিয়ে পিএসজির সঙ্গী হয়েছে লিভারপুল। তাতে ইউরোপা কাপ খেলেই সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছে ইতালির ক্লাবটিকে। বাদ পড়েছে রেড স্টার বেলগ্রেড।

গ্রুপ ডি: ডি গ্রুপ থেকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন্স হয়ে শেষ ষোলোর টিকিট পেয়েছে পোর্তো। রানার্সআপ শালকে ০৪। তৃতীয় হয়ে ইউরোপা লিগ খেলবে গ্যালাতাসারাই। লোকোমোটিভ মস্কো রয়েছে গ্রুপের তলায়।

গ্রুপ ই: ‘ই’ গ্রুপ থেকে নকআউট রাউন্ডে উঠেছে বায়ার্ন মিউনিখ ও আয়াক্স আমস্টারডাম। এ দুই দলের জমজমাট লড়াই শেষে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে জার্মানির দলটিই। তৃতীয় হয়ে ইউরোপা লিগ খেলবে বেনফিকা। বাদ পড়েছে এইকে এথেন্স।

গ্রুপ এফ: এফ গ্রুপ থেকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডের টিকিট পেয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। দ্বিতীয় হয়ে তাদের সঙ্গী অলিম্পিক লিওঁ। বাদ পড়েছে হফেনহেইম। তবে তৃতীয় স্থানে থাকা শাখতার দোনেৎস্ক খেলবে ইউরোপা লিগে।

গ্রুপ জি: শেষ ম্যাচে সিএসকেএ মস্কোর কাছে উড়ে গিয়েই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই থেকে পরের রাউন্ডের টিকিট পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। তাদের সঙ্গী এএস রোমা। আর দুইবার রিয়াল মাদ্রিদকে হারিয়েও বাদ পড়তে হয়েছে সিএসকেএ মস্কোকে। গোল ব্যবধানে তৃতীয় হয়ে ইউরোপা লিগে খেলার সুযোগ পেয়েছে ভিক্টোরিয়া প্লাজেন।

গ্রুপ এইচ: শেষ ম্যাচে হেরেও গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে থেকে নক আউটে নাম লিখিয়েছে জুভেন্টাস। তাদের সঙ্গী ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডও শেষ ম্যাচে হেরেছে। ভ্যালেন্সিয়া খেলবে ইউরোপা লিগ। আর বাদ পড়েছে জুভেন্টাসকে হারানো ইয়াং বয়েজ।
শেষ ষোলোর ড্র হবে আগামী ১৭ ডিসেম্বর, সুইজারল্যান্ডের লিয়নে। সেদিনই জানা যাবে, নকআউটে কে কার প্রতিপক্ষ হচ্ছে।শেষ ষোলোর ড্র নির্ধারণে দুটি শর্ত আছে: কোনো দলই গ্রুপর্বে একই গ্রুপে খেলেছে এমন দলের মুখোমুখি হবে না এবং একই দেশের দুই ক্লাব একে অপরের বিরুদ্ধে খেলবে না।শেষ ষোলোর ভাগ্য নির্ধারণে সময় একটি পাত্রে থাকবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন দলগুলো এবং অন্য পাত্রে রানার্সআপ।
নকআউট এই পর্বের খেলা মোট চারটি তারিখে। প্রথম লেগ হবে ২০১৯’র ১২ ও ১৩ ফেব্রুয়ারি এবং ১৯ ও ২০ ফেব্রুয়ারি। দ্বিতীয় লেগ হবে মার্চের ৫, ৬, ১২ ও ১৩ তারিখে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.