নেইমারহীন পিএসজির শেষ মুহূর্তে ১২ মিনিটের ৩ গোলে দুর্দান্ত জয়

ঘরের মাঠে বুধবার রাতে লিগ ওয়ানের ম্যাচটি ৪-০ গোলে জিতেছে শিরোপাধারীরা। একটি করে গোল করেন তিমোথি পেমবেলে, কিলিয়ান এমবাপে, ইদ্রিসা গেয়ি ও মোইজে কিন। গত রাউন্ডে লিলের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছিল পিএসজি। লিগ শিরোপা ধরে রাখার অভিযানে উত্থান-পতনের মধ্যে দিয়ে চলা পিএসজি বড়দিনের ছুটির আগে দুর্দান্ত এ জয়। ম্যাচজুড়ে দাপুটে ফুটবল খেলে স্ত্রাসবুরকে উড়িয়ে দিয়েছে টমাস টুখেলের দল।

শুরু থেকে স্ত্রাসবুরকে চেপে ধরে চ্যাম্পিয়নরা। বল দখলে একচেটিয়া আধিপত্য করা দলটি গোলের দেখা পায় ১৮তম মিনিটে। অফসাইডের ফাঁদ এড়িয়ে বাঁ দিক থেকে কুলাঁ দেগবার বাড়ানো বল ডি-বক্সে খুঁজে পায় আনহেল দি মারিয়াকে। আর্জেন্টাইন তারকার শট গোলরক্ষক ফেরালেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি, কাছ থেকে ফাঁকা জালে বল পাঠান ফরাসি ডিফেন্ডার পেমবেলে। পিএসজির একাডেমিতে বেড়ে ওঠা ১৮ বছর বয়সী এই খেলোয়াড়ের সিনিয়র দলের হয়ে এটাই প্রথম গোল।
প্রথমার্ধের বাকি সময়ে ব্যবধান বাড়ানোর বেশ কিছু সুযোগ পায় স্বাগতিকরা। কিন্তু সফরকারী গোলরক্ষক ও ডিফেন্ডারদের দৃঢ়তায় জালের দেখা মেলেনি। বিরতির আগে ডি-বক্সের সামনে থেকে রাফিনিয়ার নেওয়া শট দুবারের চেষ্টায় ফেরান গোলরক্ষক। দ্বিতীয়ার্ধেও আক্রমণের ধারাবাহিকতা ধরে রাখে পিএসজি। ৫৮তম মিনিটে ডি-বক্সে এমবাপের বাড়ানো বল ফাঁকায় পেয়ে পা ছোঁয়াতে পারেননি রাফিনিয়া। শেষ দিকে ১২ মিনিটের মধ্যে তিন গোল করে বড় জয় নিশ্চিত করে টুখেলের দল।

৭৯তম মিনিটে দি মারিয়ার পাস থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন এমবাপে। ৮৮তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে বুলেট গতির শটে অসাধারণ এক গোল করেন গেয়ি। আর যোগ করা সময়ে জালের দেখা পান কিন। ১৭ ম্যাচে ১১ জয় ও দুই ড্রয়ে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে আগের মতো তিনে আছে পিএসজি। সমান ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে ১৭তম স্থানে স্ত্রাসবুর। নঁতের বিপক্ষে ৩-০ গোলে জেতা লিওঁ ৩৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠেছে। মোঁপেলিয়েকে ৩-২ গোলে হারানো লিল সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে দুইয়ে নেমে গেছে।