মেসি-সুয়ারেজদের বার্সেলোনার জয় দিয়ে নতুন বছর শুরু

নতুন বছরে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেছে বার্সেলোনা, প্রতিপক্ষ গেটাফে। লা লিগার এই ম্যাচে তাদের জিততে বেশ ঘাম ঝরাতে হযেছে। অতিকষ্টে ২-১ গোলে জিতেছে তারা। বার্সেলোনার লা লিগায় টেবিলের শীর্ষে অ্যাটিটিতিকো মাদ্রিদের চেয়ে পাঁচ পয়েন্ট ব্যবধানে স্পষ্ট এগিয়ে । ২019 সালের প্রথম খেলায় গিটফের কাছে ২-1 ব্যবধানে জয় পেয়েছে বার্সেলোনা। খেলাটি যথেস্ট উপভোগ্য ছিল না, তথাপি বার্সেলোনা তিন পয়েন্ট পেয়ে মাঠ ছেরেছে যথেস্ট ভালো দল গেটাফের বিপক্ষে জয় পেয়ে।

প্রথমার্ধের খেলার বর্ণনাঃ

খেলার শুরুতে বেশ ভালো ছিল না, উভয় পাশে প্রচুর ফাউল এবং হলুদ কার্ড ছিল ছড়াছড়ি ছিল । খেলাটিতে কোনও ভালো খেলার বা ম্যাচটি জমার কোন প্রবাহ ছিল না । মেসির নৈপুণ্যে ম্যাচের ২০তম মিনিটে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। ডি-বক্সে উড়ে আসা বল প্রথম ছোঁয়ায় সামনে বাড়িয়ে দুরূহ কোণ থেকে বাঁ পায়ের শটে আসরে নিজের ১৬তম গোলটি করেন সর্বোচ্চ গোলদাতা।

৩৯তম মিনিটে ডান দিক থেকে মেসির ফ্রি-কিক ঠিকমতো বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হয় গেটাফের রক্ষণভাগ। বল চলে যায় ডি-বক্সের বাইরে সুয়ারেজের পায়ে। ডান পায়ের জোরালো ভলিতে কাছের পোস্টঘেঁষে বল ঠিকানায় পাঠান তিনি। ১২ গোল নিয়ে গোলদাতার তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে আছেন উরুগুয়ের এই স্ট্রাইকার। তবে বিরতির আগে একটি গোল করে ব্যবধান কিছুটা কমিয়ে লড়াইয়ে ফেরার আভাস দেয় গেটাফে। স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড হাইমে মাতা করেন গোলটি। পরে আর কোনো দলকেই গোল করতে পারেনি।

দ্বিতীয়ার্ধের খেলার বর্ণনাঃ

দ্বিতীয় অর্ধেকটি গ্যাটাফের দখলে ছিল, যারা তাদের চাপ বাড়িয়েছিল এবং সম্ভাবনা তৈরি করতে শুরু করেছিল। মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেনকে কিছু উত্তেজনাপূর্ণ গোল করার চেষ্টা করতে দেখা গেছে এবং জেমি মাতা রক্ষককে ঘিরে এক অবিশ্বাস্য সুযোগ মিস করেন এবং বার্সাও এ সময়ে কয়েকটি কাউন্টার এ্যাটাকের সম্ভাবনা নষ্ট করে। দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে অবশ্য কোন পক্ষই আর গোল করতে পারেনি। ফলে বছরের প্রথম ম্যাচে ২-১ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছেন মেসি-সুয়ারেজরা। এই জয়ে ১৮ ম্যাচে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে আছে বার্সেলোনা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা আথলেটিকো মাদ্রিদের পয়েন্ট ৩৫। আর ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে আছে সেভিয়া। ৩০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পাঁচ নম্বরে রিয়াল মাদ্রিদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.